প্রযুক্তির খবর

হাইপারসনিক অস্ত্র ও লেজার সক্রিয়ভাবে পরীক্ষা করছে রাশিয়ান সেনাবাহিনী

June 22, 2019

হাইপারসনিক অস্ত্র ও লেজার সক্রিয়ভাবে পরীক্ষা করছে রাশিয়ান সেনাবাহিনী

রাশিয়ান সামরিকবাহিনী নতুন লেজার এবং হাইপারসনিক অস্ত্রের জন্য যুদ্ধ পরীক্ষা শুরু করেছে

রাশিয়ান মিলিটারি প্রেস রিলিজে রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সারগেই শোয়েগু বলেন,

“অদূর ভবিষ্যতে, রাশিয়ান সেনাবাহিনী হাইপারসনিক ও লেজার প্রযুক্তির উপর বানানো একটি সম্পূর্ণ নতুন ও শক্তিশালী অস্ত্রব্যবস্থা পেতে যাচ্ছে।”

যদি রাশিয়া তার লেজার কামানগুলো ইতিমধ্যে পরীক্ষা চালিয়ে থাকে এবং সত্যই কিভাবে হাইপারসনিক অস্ত্র বানানো শিখে ফেলে তাহলে এটা আন্তর্জাতিক সামরিক শক্তির ভারাসাম্যতে ব্যাপক পরিবর্তন আনবে। এমনকি এটা রণকৌশলের বর্তমান চেহারাও পাল্টে দিতে পারে।

শোয়েগু আরও ব্যাখ্যা করেছিলেন যে কিভাবে উন্নত বুদ্ধিমত্তা সিস্টেম উচ্চ প্রযুক্তির নতুন অস্ত্র স্থাপনের জন্য রাশিয়ার সামরিক প্রস্তুতির উন্নতি করবে। আরও বর্ণনা করেন এটি কীভাবে তথ্য প্রবাহ এবং যুদ্ধের সরবরাহ ব্যবস্থাকে আরও ভালভাবে পরিচালনা করবে।

শোয়েগু এক আলাদা প্রেস রিলিজে বলেন,

“স্ট্রেলেটস কমান্ড, কন্ট্রোল, এবং বুদ্ধিমত্তা সিস্টেম সেনাবাহিনীকে প্রকৃত সময়ে টার্গেটগুলি তাদের সনাক্তকরণের ৮-১২ মিনিট পর সক্রিয় করতে সক্ষম করে।”

গত মাসে পুতিন রাশিয়ার লেজার অস্ত্র প্রোগ্রাম কর্মসূচির বিষয়ে গর্ববোধ করেন। এই নিউজ আপডেটটি এটাই প্রমাণ করে যে, দেশটি যুদ্ধের জন্য অস্ত্র পরীক্ষা শুরু করছে, আরও দেখায় যে ভবিষ্যৎ রণক্ষেত্র ভয়ঙ্করসব নতুন অস্ত্র দিয়ে ভরপুর আর সে ভবিষ্যৎ সন্নিকটে।

রেফারেন্স: রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নিউজরুম

প্রযুক্তি নিয়ে আলোচনা করার জন্য রয়েছে

আমাদের কমিউনিটি

প্রযুক্তি নিয়ে আমরা আলোচনা করতে চাই সব সময়। তাই আমাদের কমিউনিটিতে আপনাদের সবাইকে আমন্ত্রণ প্রযুক্তির সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য। আপনাদের যে কোন ধরনের সমস্যা, অজানা বিষয় গুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করতে প্রস্তুত সব সময়

কমেন্ট করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *