প্রযুক্তির খবর

ল্যাবেই উন্নত মস্তিষ্ককোষ তৈরি করলেন জাপানিজ গবেষকরা

June 28, 2019

ল্যাবেই উন্নত মস্তিষ্ককোষ তৈরি করলেন জাপানিজ গবেষকরা

বহু বছর ধরে, বিজ্ঞানীরা ল্যাবে তৈরি মানুষের অঙ্গপ্রত্যঙ্গের উন্নতির জন্য চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। এগুলো মানুষের অঙ্গগুলোর সরলীকরণ যেগুলি জটিল চিকিৎসা বা নতুন ওষুধ পরিক্ষায় ব্যবহার করা যায়।

ফিজিক্স ওয়ার্ল্ডের ভাষ্যমতে,

এবার জাপানিজ গবেষকদের একটি দল একটি ক্ষুদ্র মস্তিষ্ক তৈরি করেছেন যেটা শুধুমাত্র সেরেব্রাল কর্টেক্সের ত্রিমাত্রিক কাঠামো দেখায় না সাথে নিউরাল কার্যক্রমগুলোও দেখায়। এই উন্নয়নের ফলে ডাক্তাররা মানুষের মস্তিষ্ক না কেটেই নিউরলজিকাল অবস্থাগুলো আরও ভালো করে নিরীক্ষা করতে পারবেন।

এই ক্ষুদ্র মস্তিষ্ক বানানো হয়েছে কালচার করা প্লুরিপোটেনট স্টেম সেল থেকে। এই সেল সংগ্রহ করা হয়েছে প্রাপ্ত বয়স্কদের কাছ থেকে যেটা কিনা যেকোনো ধরণের কোষে পরিণত হতে পারে। মস্তিষ্কের কোষে পরিণত হবার পরে, দলটি এসব কোষকে পৃথক করেন এবং তাদেরকে একটি পেট্রি ডিশে আলাদা আলাদাভাবে রাখেন যেখানে তারা নিজেদের মধ্যে একটি নিউরাল নেটওয়ার্ক গড়ে তুলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। গেল বৃহস্পতিবার দ্য জার্নাল স্টেম সেল রিপোর্টে এই গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে। সুতরাং বলা যায়, কোষগুলো নিজেদের মাঝে সংঘবদ্ধ হয়ে একটি সেরেব্রাল কর্টেক্সের মত কাঠামো দাঁড় করায়।

কিয়োটো বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক্সিট হিদেয়া সাকাগুছি ফিজিক্স ওয়ার্ল্ডকে বলেন,

“এই অঙ্গগুলোর একটি তাৎপর্যপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল তারা উন্নয়নের সময়ই সেরেব্রামের মত করে তাদের আকার ধারণ করে। তারদের লেয়ার্ড কাঠামোগুলো খুবই সুন্দর এবং আসল মস্তিষ্ক টিস্যুর মত দেখতে।”

এই ক্ষুদ্র মস্তিষ্ক একটি সুন্দর উদাহরণ যেখানে বিজ্ঞানীরা কত দক্ষতার সাথে একেবারে শুন্য থেকে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বানিয়ে ফেলেছেন। গবেষণা বলছে, এই কৃত্রিম নিউরনগুলো আমাদের মস্তিষ্কের মত আচরণ করে কিনতয় তারা কখনোই একটি পূর্ণ মস্তিষ্কে বেড়ে উঠতে পারবে না। বরঞ্চ এই অঙ্গটি গবেষণা ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে এবং আমাদের খুলির নিচে আসলেই কি ঘটছে তার হাতে-নাতে বুঝার মত একটি অভিজ্ঞতা দিবে বিজ্ঞানীদের।

রেফারেন্স: ফিজিক্স ওয়ার্ল্ড

প্রযুক্তি নিয়ে আলোচনা করার জন্য রয়েছে

আমাদের কমিউনিটি

প্রযুক্তি নিয়ে আমরা আলোচনা করতে চাই সব সময়। তাই আমাদের কমিউনিটিতে আপনাদের সবাইকে আমন্ত্রণ প্রযুক্তির সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য। আপনাদের যে কোন ধরনের সমস্যা, অজানা বিষয় গুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করতে প্রস্তুত সব সময়

কমেন্ট করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *